Welcome - শিবরাম সকাল-সন্ধ্যা শিক্ষালয়

একদিন কিছু লোক এক স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের এক ছাত্রকে রাস্তায় আটকালো। উদ্দেশ্য তাকে প্রশ্ন করে প্রতিষ্ঠানের সুনামকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে। কেউ একজন ছাত্রটিকে জিজ্ঞেস করলো,-“বলতো, এই পুকুরে কত গ্লাস পানি আছে?”

ছাত্রটির বুদ্ধিদীপ্ত উত্তর, “গ্লাসটি যদি পুকুরের সমান হয়, তাহলে একগ্লাস আর গ্লাসের আয়তন যদি পুকুরের অর্ধেক হয় তাহলে দুই গ্লাস পানি আছে।” উত্তর শুনে সবাই তাজ্জব বনে গেলেন এবং নিজ নিজ সন্তানকে সেই প্রতিষ্ঠানে ভর্তি করিয়ে দিলেন।

সম্মানীত অভিভাবক,

আসসালামু আলাইকুম। এরকম বুদ্ধিদীপ্ত শিক্ষার্থী আমরা দিনকে দিন হারিয়ে ফেলেছি। কারন, আমরা শিক্ষার আসল উদ্দেশ্যকেই ভুলতে বসেছি। শুধুমাত্র পাশকরা বিদ্যাকেই বিদ্যা বলা চলে না।

একটি শিশুর হাতেখড়ি পরিবারে হলেও তার শিক্ষা জীবন পূর্নতা পায় শিক্ষালয়ে। শিশুর সামাজিকীকরণেও পরিবারের পরেই তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্থান। শিক্ষক এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান কাজ শিক্ষার্থীর অন্তর্নিহিত শক্তিকে জাগিয়ে তোলা। তাদের মধ্যে মূল্যবোধ সৃষ্টি করা। আমরা এক বিশাল স্বপ্নকে বুকে ধারণ করে আমাদের এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠিত করেছি। আমাদের এই শিক্ষার্থীরা হবে বিশুদ্ধভাষী। শিষ্টাচার আর ভদ্রতা হবে তাদের ভূষণ। মূল্যবোধের অপার মহিমা তাদের করবে মহিমান্বিত। আর ফলাফলের ক্ষেত্রেও তারা হবে সবার চেয়ে অগ্রগামী।

আমাদের এই স্বপ্নের সাথে যদি আপনার স্বপ্ন মিলে যায়, তাহলে আসুন, আমরা আমাদের স্বপ্ন পূরণে  সম্মিলিত প্রচেষ্টার স্ফূরণ ঘটাই। এক্ষেত্রে “শিবরাম সকাল-সন্ধ্যা শিক্ষালয়” হয়ে উঠুক আপনার সন্তানের স্বপ্নের বীজতলা। আর সেই বীজতলায় প্রয়োজনীয় রসদ জোগানে আমরা সর্বদাই প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। আপনাদের সর্বাঙ্গীন মঙ্গল কামনায়-

 

পরিচালনা পর্ষদ

শিবরাম সকাল-সন্ধ্যা শিক্ষালয়